দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে ঠিক হল নাসার ‘Hubble Telescope’

গত প্রায় এক মাস ধরে অকেজো হয়ে পড়েছিল নাসার অন্যতম স্পেস টেলিস্কোপ ‘Hubble‘। আর অবশেষে এই হাবল টেলিস্কোপকে সারানো সম্ভব হল। নাসার তরফ থেকে জানানো হয়, আর কিছুদিনের মধ্যেই নতুন ভাবে কাজ শুরু করবে এই টেলিস্কোপ। নাসা আরো জানিয়েছে, একটি জটিল রিমোট রিপিয়ারের কাজ সম্পন্ন করেছেন তারা এবং আশা করা যাচ্ছে হাবল টেলিস্কোপ পুনরায় মহাকাশের রহস্য উদঘাটনে নেমে পড়বে খুব শীগ্রই।

গত জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ে এই অর্বিটিং অবজারভেটরি হাবল স্পেস টেলিস্কোপ (Hubble space telescope) অকেজো হয়ে পড়েছিল। যার পর থেকেই বিজ্ঞানীদের কপালে পড়েছিল চিন্তার ভাঁজ। অনেক চেষ্টার পরেও এটিকে সারিয়ে তোলা সম্ভব হচ্ছিল না। স্পেস টেলিস্কোপের পেলোড কম্পিউটারটি নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে বেশ কয়েকদিন ধরেই মহাকাশের মনমুগ্ধকর ছবিগুলি আমাদের পক্ষে দেখা সম্ভব হচ্ছিল না। তবে সেই কাজে খুব শীঘ্রই নিযুক্ত হতে চলেছে এই স্পেস টেলিস্কোপ। আর আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই হয়তো মহাকাশের নতুন, অত্যাশ্চর্য ও মনমুগ্ধকর ছবি আমাদের সামনে আসবে পুনরায়।

স্পেস টেলিস্কোপের ভিতরে থাকার একটি পেলোড কম্পিউটার যেটি ১৯৯০ এর দশকে তৈরি, সেই কম্পিউটারে গোলযোগ দেখা দিয়েছিল বলে অনুমান করছেন বিজ্ঞানীরা। তবে এই সমস্যার সমাধান করতে গিয়ে বিজ্ঞানীরা নতুন আরও এক সমস্যার সম্মুখীন হন। তারা দেখেন ব্যাকআপ পেলোড কম্পিউটারেও গোলযোগ দেখা দিয়েছে। এর পরেই Maryland Goddard space flight centre এর ডেটা ইউনিট এবং সাইন্স ইন্সট্রুমেন্ট কমান্ডের দিকে নজর দেন ফ্লাইট কন্ট্রোলাররা। এই সাইন্স ইন্সট্রুমেন্ট গুলি হাবল টেলিস্কোপ ইন্সটল করা হয়েছিল ২০০৯ সালে। এই ইন্সট্রুমেন্ট গুলিকে সাফল্যের সাথে পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে সাথেই নষ্ট হয়ে যাওয়া পিলোড কম্পিউটারটিকে সারিয়ে তুলেছেন তারা। নাসার তরফ থেকে জানানো হয় সবকিছু সঠিক ভাবে কাজ করলে আর কয়েক দিনের মধ্যেই হাবল টেলিস্কোপ পুনরায় কাজ করতে শুরু করবে।

আরো পড়ুন-এখনো সারানো সম্ভব হলো না নাসার হাবল টেলিস্কোপকে, গভীর চিন্তায় নাসা

হাবল টেলিস্কোপ লঞ্চ করা হয়েছিল ১৯৯০ সালে। বলাবাহুল্য এই টেলিস্কোপের সাহায্যে জ্যোতির্বিজ্ঞানে বিপ্লব ঘটে। হাবল টেলিস্কোপ এর সাহায্যেই জানা সম্ভব হয়েছে আমাদের নিজস্ব ছায়াপথ মিল্কিওয়ে সম্পর্কে, এছাড়াও মহাকাশে থাকা অসংখ্য ছায়াপথগুলোর ধারণা এসেছে এই হাবল টেলিস্কোপ এর সাহায্যেই। প্রায় ৩০ বছর ধরে পৃথিবী থেকে ৫৪৭ কিলোমিটার উপরে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করতে করতে মহাকাশের নানান অজানা তথ্য আমাদের সামনে তুলে ধরেছে এই হাবল টেলিস্কোপ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাবল টেলিস্কোপ এর থেকেও উন্নত এবং বেশি শক্তিশালী একটি টেলিস্কোপ এই বছরেই মহাকাশে পাঠাবে নাসা, যে টেলিস্কোপটির নাম ‘জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ‘। মহাকাশের আরো গভীরে রহস্য উন্মোচন এবং হাবল টেলিস্কোপ এর সাকসেস হিসেবে লঞ্চ করা হবে এই স্পেস টেলিস্কোপটি।

“দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে ঠিক হল নাসার ‘Hubble Telescope’”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply