নীল রঙের গ্রহের ছবি প্রকাশ করল নাসা, এ এক অন্য পৃথিবী- দেখুন বিস্তারিত

নাসা: সম্প্রতি নাসা তাদের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রামে একটি নীল রঙের গ্রহের ছবি প্রকাশ করেছে। যেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত ভাইরাল হয়েছে অন্য এক পৃথিবী বলে দাবি করছেন অনেকেই কারণ গ্রহের রং নীল ও বাদামী রঙের। নীল গ্রহের নাম শুনলেই আমাদের মনে প্রথমে যেটা আসে সেটা হল জল। তাহলে নাসার প্রকাশিত ছবিতে যে গ্রহটির উল্লেখ আছে সেখানে কি জলের অস্তিত্ব রয়েছে?। দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলে রাখি নিচের যে গ্রহটি ছবি আপনারা সকলে দেখতে পাচ্ছেন সেটি আমাদের সৌরজগতেরই একটি গ্রহ যার নাম বুধ।

নামটা শুনে অবাক হচ্ছেন তো, সূর্যের সবচেয়ে নিকটতম গ্রহের ছবি যে এরকম হতে পারে তা হয়তো আমরা অনেকেই জানিনা। বুধ গ্রহ সম্বন্ধে আমরা বেশ কিছু তথ্য জানি যে রকম সূর্যের সবচেয়ে নিকটতম গ্রহ হওয়ার কারণে এই গ্রহের তাপমাত্রা অত্যন্ত বেশি এবং এই গ্রহতে জল পাওয়া প্রায় অসম্ভব। নাসা এই ছবিটি তুলেছে ২০০৪ সালে লঞ্চ হওয়া ‘মেসেঞ্জার’ মিশন থেকে। বুধের কক্ষপথে প্রবেশ করা এটি প্রথম মহাকাশ যান। আপনাদের জেনে রাখা দরকার বুধ সূর্যের নিকটতম গ্রহ হওয়ার কারণে বুধ গ্রহের পরিক্রমণ গতি অত্যন্ত বেশি। 

পৃথিবী যেমন সূর্যকে প্রদক্ষিণ করতে সময় নেয় ৩৬৫ দিন ঠিক সেরকমই বুধ সূর্যকে প্রদক্ষিণ করতে সময় নেয় মাত্র ৮৮ দিন। এই কারণে বুধ গ্রহের কক্ষপথে কোন মহাকাশযান কে প্রবেশ করানো অত্যন্ত কঠিন ছিল। ২০১৫ সাল পর্যন্ত মেসেঞ্জার নামক এই মহাকাশযানটি বুধ গ্রহকে পরিক্রমণ করেছে। এই মিশনের মাধ্যমে নাসা বুধ গ্রহ সম্বন্ধে বায়ুমণ্ডল, পরিবেশ ইত্যাদি সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেছে। বুধ গ্রহের যে অংশ সূর্যের সামনে থাকে সেই সময় সেখানকার তাপমাত্রা প্রায় ২৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হয়ে যায়। আর যে অংশ অন্ধকার থাকে সেখানকার তাপমাত্রা -১৮০° সেলসিয়াস হয়।

নাসার প্রকাশিত ছবি

বুধ গ্রহের বায়ুমন্ডল অত্যন্ত হালকা, এখানকার বায়ুমন্ডলে হাইড্রোজেন, হিলিয়াম, পটাশিয়াম, অক্সিজেনের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি পরিমাণে রয়েছে। বর্তমানে জাপানের স্পেস এজেন্সি ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ২০১৮ সালে ‘বেপিকলম্বো’ নামে একটি মহাকাশযান বুধ গ্রহের উদ্দেশ্যে পাঠায় যেটি ২০২৫ সাল পর্যন্ত এই গ্রহকে পর্যবেক্ষণে রাখবে এবং আরো অনেক তথ্য আমাদের সামনে নিয়ে আসবে। 

নাসা, মহাকাশ সম্পর্কিত অন্যান্য তথ্যের জন্য আমাদের ওয়েবসাইট, ফেসবুক পেজ, টুইটার পেজ, ইন্সটাগ্রাম ইত্যাদি প্লাটফর্মে ফলো করতে পারেন। ধন্যবাদ। 

Leave a Reply