বৃহস্পতি গ্রহের চাঁদ-এর ভিডিও শেয়ার করল নাসা

আমেরিকার অন্যতম মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা) মহাজগতের নানান অদ্ভুত অজানা রহস্যে ঘেরা দৃশ্যগুলি প্রায়শই আমাদের সামনে তুলে ধরে। মহাকাশের অজানা রহস্য উন্মোচিত হয় কখনো ছবির মাধ্যমে আবার কখনো বা ভিডিওর মাধ্যমে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হওয়া ছবি ও ভিডিও গুলি মহাকাশ সম্পর্কে কত কিছুই না জানতে সাহায্য করেছে আমাদের। যে ছবিগুলি না দেখলে হয়তো আমরা কোনদিন জানতেই পারতাম না পৃথিবীর বাইরের জগতটা এতটা সুন্দর। আর এই ছবিগুলি সংগ্রহ করতে নাসাকে সাহায্য করে তাদের মহাকাশযান ও টেলিস্কোপ গুলি।

সম্প্রতি মহাকাশে আমাদের সৌরজগতে আটটি গ্রহের মধ্যে সবচেয়ে বড় গ্রহ বৃহস্পতি এর উপগ্রহ অর্থাৎ চাঁদের একটি ভিডিও সামনে এনেছে নাসা। নাসার মহাকাশযান ‘জুনো’ (Juno Spacecraft) বৃহস্পতি গ্রহের সবচেয়ে নিকটতম মহাকাশযান। এই মহাকাশযানটি বৃহস্পতি গ্রহের কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করে এবং চারপাশের ছবি পাঠায় নাসার কাছে। আর ঠিক তেমনি বৃহস্পতির চাঁদ এর ছবি ধরা পড়েছে জুনোর ক্যামেরায়। পৃথিবীর পার্শ্ববর্তী মঙ্গল এবং চাঁদের বিভিন্ন ছবি নাসার কাছে রয়েছে। তবে মঙ্গলের পরবর্তী গ্রহ অর্থাৎ বৃহস্পতি এবং শনি গ্রহ গুলির ছবি এবং তাদের উপগ্রহ গুলির সুস্পষ্ট ছবি খুব কমই রয়েছে নাসার কাছে।

আরো পড়ুন-দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে ঠিক হল নাসার ‘Hubble Telescope’

২০১৬ সাল থেকে নাসার এই জুনো মহাকাশযানটি বৃহস্পতি গ্রহ এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের বিভিন্ন ছবি পাঠিয়েছে পৃথিবীতে। সম্প্রতি এই মহাকাশযানটি বৃহস্পতির উপগ্রহ অর্থাৎ চাঁদের ছবি পৃথিবীতে পাঠিয়েছে, যে চাঁদ টির নাম ‘গ্যানিমিড‘। বৃহস্পতির উপগ্রহ অর্থাৎ গ্যানিমিড সম্পূর্ণ বরফে ঢাকা। বৃহস্পতির এই চাঁদের একটি ভিডিও জুনো মহাকাশযানটি ধরতে সক্ষম হয়েছে, যে ভিডিওতে দেখা গিয়েছে গ্যানিমিড এর উপরিভাগের ছবি। তবে আশ্চর্যের বিষয় হলো এই ভিডিওটি করতে সময় লেগেছে ১২ ঘণ্টারও বেশি সময়। অন্যদিকে ভিডিওটি খুব একটা বড় নয়, মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ভিডিও। ভিডিওতে গ্যানিমিড এর উজ্জ্বল ক্রেটার গুলি একেবারে স্পষ্ট। যা মন কেড়েছে প্রায় সকল নেটিজেনদের।

“বৃহস্পতি গ্রহের চাঁদ-এর ভিডিও শেয়ার করল নাসা”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply