পৃথিবীতে প্রাপ্ত অদ্ভুত দর্শন মাকড়সা

পৃথিবীতে মাকড়সার প্রজাতির সংখ্যা ৪৫,০০০ যা সারা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে। বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন এলাকায় অনেক অদ্ভুত দর্শন মাকড়সা রয়েছে যা দেখলে চমকে যাওয়া টা অস্বাভাবিক কিছু নয়। আবার এমন মাকড়সাও রয়েছে যাদের দেখে মাকড়শা বলে মনে হবে না আপনার। আজ এমনই কিছু মাকড়সার কথা জানব যারা আমাদের আশেপাশেই থাকে অথচ সাধারণ মাকড়শাগুলি থেকে তারা অনেকটাই আলাদা। যাদের দেখে মাকড়শা সম্পর্কে সাধারণ ধারণাটিও পাল্টে যেতে পারে আপনার।  

Bird dung crab spider (বার্ড ডাঙ্গ ক্র্যাব স্পাইডার):

এই মাকড়সাটি সম্পর্কে অনেকেই হয়তো জানেন না। ইন্দোনেশিয়া ও জাপানে পাওয়া এই মাকড়সার দেহের গঠন ও বৈশিষ্ট্য গুলো বেশ চমকপ্রদ। এদের দেহটি শক্ত আচ্ছাদন দ্বারা আবৃত থাকে। একটি কাকড়ার মত দেহের উপরের অংশে কিছুটা পাখিদের দাঁড়া ত্যাগ করা মলের মত দাগ থাকে। এই মাকড়শা জাল বুনে যখন তার মাঝখানে বসে তখন এদের দেখে মনে হয় জালের উপর কোন পাতায় পাখির মল এসে পড়েছে। আশ্চর্যের ব্যাপার হলো শুধু দেখতেই নয় এদের দেহ থেকে বের হওয়া গন্ধ টিও পাখির মলের মতই। এদের এমন দেখতে হওয়ার কারণে এটি দুটি দিক দিয়ে মাকড়সাটি কে সাহায্য করে। প্রথমত পাখির মলের মত পিঠে দাগ থাকায় কোন পাখি এদের আক্রমণ করে, পাখিরা এটিকে মাকড়শা না ভেবে বরং তাদেরই দ্বারা ত্যাগ করা মল মনে করে। দ্বিতীয়তঃ মল প্রেমী পোকামাকড় গুলি যেমন গোবরে – পোকা ও অন্যান্য পকাগুলি এটিকে দেখে আকৃষ্ট হয় এবং শিক্ষার সুবিধা হয় মাকড়সাটির।

আরও পড়ুন- বাস্তবে কি রেডিওঅ্যাকটিভ মাকড়সা তৈরি সত্যিই সম্ভব?

Spiny orb weaver (স্পিনি অর্ব ওয়েভার):

এই স্পিনি অর্ব ওয়েভার মাকড়সাটির দেহে থাকে অনেকগুলি শিং যা এদেরকে অদ্ভুত দর্শন করে তোলে। এদের প্রায় ৭০ প্রজাতি রয়েছে যাদের বেশিরভাগই শিংযুক্ত। এই প্রজাতির অনেকগুলো মাকড়সা এখনও আবিষ্কৃত হয়নি। এদের দেখতে খুবই ভয়ঙ্কর হওয়া সত্বেও এই মাকড়সার প্রজাতিটি খুবই নিরীহ প্রকৃতির। এদের জালের ভিতর এরা পতাকার মতই একরকমের নকশা তৈরি করে চারপাশ দিয়ে। পতাকার আকৃতির নকশা ছোট ছোট পাখিদেরকে সাবধান করে জালে আটকে পড়া থেকে। জলের ভিতর পতাকার মত নকশা তৈরির জন্য খুবই বিখ্যাত অদ্ভুত এই প্রজাতিটি। এই মাকড়সার প্রজাতিটি সারা বিশ্বজুড়ে দেখা যায়। এদের দেহের ওপর থাকা কাটা গুলি পাখিদের হাত থেকে রক্ষা করে এদেরকে। এদের আরো একটি প্রজাতি রয়েছে এরকমই অদ্ভুত দেখতে যেটি হলো গ্যাস্টেরাকান্থ জেমিনাটা। অদ্ভুত নামের সাথে এটি দেখতেও খুবই অদ্ভুত। এই মাকড়সাটি ভারতে ও ভারতের পার্শ্ববর্তী দেশ শ্রীলঙ্কাতে দেখতে পাওয়া যায়।

Argyrodes colubrinus (আর্গেরোডস কোলব্রিন্যস):

আটটি পা যুক্ত মোটা দেহবিশিষ্ট মাকড়সা প্রায়শই দেখা যায়। তবে আপনি কি সাপের মত দেহ বিশিষ্ট মাকড়শা কখনো দেখেছেন? এই মাকড়শার দেহে আটটি পা রয়েছে; তবে এদের দেহেটি অন্যান্য মাকর্শাগুলির থেকে একেবারেই আলাদা। সাপের মতো দেখতে হয় বলে এটির নাম কোলব্রিন্যস। অস্ট্রেলিয়ার প্রাপ্ত মাকড়সাটির দীর্ঘ, পাতলা একটি পেট রয়েছে এবং দেহের অগ্রভাগে আটটি পা রয়েছে। এদের দ্বারা তৈরী জালটিতে যখন এরা বসে থাকে তখন এদের দেখতে কোন গাছের ছোট ডালের মতো মনে হয়, যা এদেরকে আক্রমণকারী প্রাণীদের থেকে বাঁচাতে সাহায্য করে। এটি হুইপ মাকড়সা পরিবারের সদস্য। এই পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বিষাক্ত হলেও এটি ততটা বিষাক্ত নয় এবং নিরীহ প্রকৃতির।

Leave a Reply