আফগানিস্তান ক্রিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে চলেছে আইসিসি

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড ঘোষণা করেছে যে UAE তে হতে চলা তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। এর কারণ বলতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে যে, ২০২১ সালে আফগানিস্তানে নতুন সরকার গঠনের পর সেখানকার মহিলাদের সমস্ত অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি তাদের সরকারের নতুন নীতির কারণে মহিলাদের উপর আরো নিষেধাজ্ঞা জারি হবে।

এডি প্রতিবাদ জানিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড আফগানিস্তানের সঙ্গে সিরিজ খেলতে সম্মত হয়নি। আপনাদের বলে রাখি বিশ্বকে ক্রিকেটে আফগানিস্তান এমন একটি দেশ যেখানকার পুরুষ দল ক্রিকেট খেলে কিন্তু কোন মহিলা ক্রিকেট দল নেই তাদের। তবে আইসিসির গভর্নিং বডির রুল অনুযায়ী আইসিসি অধীনে খেলা সমস্ত দেশগুলিকে তাদের পুরুষ এবং মহিলা ক্রিকেট দল খেলাতে হবে।

এই রুল যদি আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের উপর লাগু করা হয় তবে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড বড়সড়ো স্যাংসানের সম্মুখীন হতে পারে। এই নিয়ে আইসিসির পরবর্তী মিটিংয়ে আলোচনা করা হবে বলে প্রকাশিত হয়েছে। জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকবাজে প্রকাশিত প্রতিবিধান অনুযায়ী আইসিসির তরফ থেকে জানানো হয়েছে,

আরো পড়ুন- হকি বিশ্বকাপ ২০২৩, সব ম্যাচের সম্পূর্ণ সময়সূচী

“আমরা আফগানিস্তানের সাম্প্রতিক ঘটনাবলী নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং আইসিসি বোর্ড তার পরবর্তী বৈঠকে এই উন্নয়নের প্রভাব বিবেচনা করবে এবং আমরা অন্যান্য বিশ্ব ক্রীড়া সংস্থার সাথে যোগাযোগ রাখব যারা আফগানিস্তানে নারী ও পুরুষদের খেলা দেখার আমাদের লক্ষ্য ভাগ করে নেয়।”
“আমরা আফগানিস্তানে নারী ও পুরুষদের নিরাপদে ক্রিকেট খেলতে দেখতে চাই এবং ধারাবাহিকভাবে এই দৃষ্টিভঙ্গি ধরে রেখেছি যে এটি অর্জনের সেরাটি হল আমাদের সদস্য, আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে, দেশে খেলার বিকাশের প্রচেষ্টায় সমর্থন করা।”

Leave a Reply