১২তম উড়ানের পরেও নাসার Ingenuity Helicopter পরবর্তী উড়ানের জন্যে প্রস্তুত?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা (NASA) এই বছরের শুরুতেই মঙ্গল গ্রহে অভিযান শুরু করে দিয়েছিল। প্রাণের অস্তিত্বের সন্ধানে পাঠানো মার্স রোভার পার্সিভিয়ারেন্স এর সাথে যুক্ত ছিল ছোট্ট একটি হেলিকপ্টার Ingenuity। হেলিকপ্টারটির মঙ্গল গ্রহের পৃষ্ঠদেশে মোট পাঁচটি মিশন করার কথা ছিল। কিন্তু ইতিমধ্যেই Ingenuity ১২তম উড়ান সম্পন্ন করেছে মঙ্গল গ্রহের বুকে। শুধু তাই নয় এতগুলি অভিযানের পরেও এখনো অবসর নিতে রাজি নয় Ingenuity।

মঙ্গল গ্রহের বুকে টানা ছয় মাস কাটিয়ে ফেলেছে Ingenuity। এখনো পর্যন্ত যতগুলি অভিযান চালানো হয়েছে তার বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সফলতাই হাতে এসেছে নাসার। যা দেখে Ingenuity-এর অভিযানের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। পার্সিভিয়ারেন্স রোভারের মঙ্গল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্বের সন্ধানে অভিযান চালিয়ে যাওয়ার অন্যতম সঙ্গী এই Ingenuity।

নাসার মার্স হেলিকপ্টারটির মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং দলের প্রধান Josh Ravich জানিয়েছেন “প্রতিটি অভিযান বেশ ভালোভাবেই এগোচ্ছে, যতটা আশা করেছিলাম তার থেকেও বেশি সফলতা এসেছে আমাদের”। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং টিমে রয়েছেন মোট ১০০ জন সদস্য, তবে বর্তমানে এই হেলিকপ্টারটির সম্পূর্ণ নজরদারিতে রয়েছেন হাতেগোনা কয়েকজন। Josh জানান তিনি এই দলে যোগ দিয়েছেন প্রায় 5 বছর আগে।

আরো পড়ুন-আবারো মহাকাশে পাড়ি ৪ সাধারণ নাগরিকের, দায়িত্ব নিল SpaceX

গত ১৯ এপ্রিল মঙ্গলের মাটিতে প্রথম উড়ান সম্পন্ন করেছিল Ingenuity। একপ্রকার ইতিহাস গড়েছিল জ্যোতির্বিজ্ঞানের জগতে পৃথিবীর বাইরে অন্য কোন গ্রহে এভাবে হেলিকপ্টার ওড়ানো এর আগে কখনো সম্ভব হয়নি। জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মতে স্পেস ফ্লাইট এর নতুন দিগন্তের সন্ধান দিয়েছে নাসার মার্স হেলিকপ্টার। ১৯ এপ্রিলের পর থেকে এখনো পর্যন্ত মোট ১২টি মিশন সফল ভাবে সম্পন্ন করেছে এটি। যদিও প্রথম পর্যায়ে ১১ এপ্রিল হেলিকপ্টারটিকে প্রথম মঙ্গলের আকাশে উড়ানোর কথা ছিল, তবে যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে সেই দিন পিছিয়ে আনা হয়। লালগ্রহের -৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় হেলিকপ্টারের প্রতিটি যন্ত্রাংশ এখনো যে ঠিকভাবে কাজ করে চলেছে এটি আশ্চর্যের।

“১২তম উড়ানের পরেও নাসার Ingenuity Helicopter পরবর্তী উড়ানের জন্যে প্রস্তুত?”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply