উত্তরাখণ্ডে ভয়াবহ তুষারধস, জারি করা হলো হাই অ্যালার্ট

৮ বছরের পুরনো ভয়াবহ স্মৃতি যেন পুনরায় ফিরে এসেছে। অতীতের সেই ধ্বংসলীলা আরো একবার মনে পড়ে গেল উত্তরাখণ্ড সহ গোটা দেশের।

উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলায় ভয়ংকর তুষারধস নেমে এসেছে। আর এই তুষারধস এর মতো মারাত্মক বিপদের পেছনে কারণ হলো হিমবাহের ভেঙে পড়া। ৮ বছর আগে এমনই এক মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে গিয়েছিল কেদারনাথে। প্রাণ গেছিল বহু মানুষের।

উত্তরাখণ্ডে ভয়াবহ তুষারধস

উত্তরাখণ্ডে তুষারধস নেমে আসার কিছুসময়ের মধ্যেই চারটি জেলায় জারি করে দেওয়া হয়েছে হাই অ্যালার্ট। এখনো পর্যন্ত পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী কমপক্ষে ১৫০ জন নিখোঁজ। আশঙ্কা করা হচ্ছে তাদের মধ্যে কয়েকজন নিহত হয়েছেন।

আরো পড়ুন – বদলে যেতে পারে পৃথিবীর মানচিত্র, দুই আমেরিকা থেকে দূরে সরে যেতে পারে ইউরোপ ও আফ্রিকা

হিমবাহের ধ্বংসের ফলে বেড়ে গিয়েছে পার্শ্ববর্তী ধউলিগঙ্গার জলস্তর। যার জেরে একাধিক গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। জলস্তর বেড়ে যাওয়ায় ধউলিগঙ্গায় গড়ে ওঠা জলবিদ্যুৎ প্রকল্প মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা মধ্যে পড়ে গিয়েছে। চামোলি থেকে ঋষিকেশ পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ধউলিগঙ্গার দু-প্রান্তে থাকা গ্রামগুলি খালি করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে চামেলীর তপবন এলাকার বিদ্যুৎ প্রকল্প।

পরিস্থিতির মোকাবেলা করার জন্য উত্তরাখণ্ডের প্রশাসন সকল রকম ভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। উত্তরাখণ্ডের প্রধানমন্ত্রী ত্রিভেন্দ্রা সিং রাওয়াত তার টুইটারে টুইট করে জানান; তিনি সকল পরিস্থিতির উপর নজর রাখছেন এবং প্রত্যেককে অনুরোধ করছেন পুরনো কোন ভিডিও শেয়ার করে আতঙ্ক না ছড়াবার জন্য। বর্তমানে এই অঞ্চলের পরিস্থিতি ভয়াবহ। আশা করা হচ্ছে সকলেই পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে সক্ষম হবেন।

Leave a Reply