৫০ বছরে পৃথিবীর গতি সবচেয়ে বেশি। দিনের দৈর্ঘ ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে

আমরা সকলেই জানি পৃথিবী সূর্যকে প্রধক্ষিন এর সাথে সাথেই নিজের অক্ষের চারিদিকেও ক্রমশ ঘুরে চলেছে। আর এই নিজের অক্ষের চারদিকে একপাক ঘুরতে পৃথিবীর সময় লাগে ২৪ ঘন্টা। এই মুহূর্তে এই ঘূর্ণনের সময়টা গত ৫০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম। অর্থাৎ গত ৫০ বছরে পৃথিবীর গতি সবচেয়ে বেশি, দিনের দৈর্ঘ ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে, এমনটাই ধারণা বিজ্ঞানীদের।

৫০ বছরে পৃথিবীর গতি সবচেয়ে বেশি। দিনের দৈর্ঘ ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে

বর্তমানে বিজ্ঞানীদের এমনটাই ধারণা যে, ২০২১ সালে পৃথিবীর অর্হ্নিক গতি ২৪ ঘন্টারও কম  চলেছে। একটা চলন্ত বাস বা ট্রেনে দাঁড়িয়ে আমরা যেমন তার গতি অনুভব করতে পারিনা, ঠিক তেমনি এতো গতিতে ঘুরে চলা পৃথিবীতে দাঁড়িয়ে আমরা পৃথিবীর অর্হ্নিক গতিকে দেখতে বা অনুভব করতে পারি না। তবে সেটা দেখা যে একেবারেই অসম্ভব তা কিন্তু একেবারেই নয়। আজ থেকে ৩ বছর আগেই এই অসাধ্য সাধন করেছিলেন Aryeh nirenberg। বর্তমানে তার তোলা একটি ভিডিও নতুন ভাবে এবিষয়ে চর্চা করতে বাধ্য করেছে বিজ্ঞানীদের।

আরও পড়ুন -SPACEX-এর উন্নত প্রযুক্তির Cargo Dragon supply ship প্রথমবার আটলান্টিকে অবতরণ করল

পৃথিবীর ঘূর্ণনের বিষয়ে বিজ্ঞানীরা কি বলছেন সে বিষয়ে একটু আলোকপাত করা যাক। বিজ্ঞানীরা জানান, কয়েক দশক পূর্বেও পৃথিবীর অর্হ্নিক গতি ২৪ ঘন্টার থেকে বেশি ছিল। তবে এই সময়টা  ক্রমশ কমেই চলেছে। গত ২০১৯ সালের জুন মাস থেকেই এই গতি কমে চলেছে। যেখানে জুন মাসে পৃথিবী নিজেকে সম্পূর্ণ ১ পাক ঘুরতে সময় নিয়েছিল ২৪ ঘন্টা থেকে ০.৫ মিলি সেকেন্ড কম। ২৪ ঘন্টায় অর্থাৎ ৮৬,৪০০ মিলি সেকেন্ডের চেয়ে ১.০৫১৬ মিলি সেকেন্ড কম সময় নিয়েছিল ২০০৫ সালের ৫ ই  জুলাই। ২০২০ সালের আগে পর্যন্ত এটাই ছিল সবচেয়ে কম সময়। তবে ২০২০ তে এই রেকর্ড ভেঙেছে বহুবার। বিজ্ঞানীদের মতে এখনো পর্যন্ত সবথেকে ছোট দিনটি ছিল ২০১৯ সালের ১৯ এ জুলাই। এর সাথেই তারা এও জানান ভবিষতে এই সময় আরো কমতে পারে, বাড়তে পারে পৃথিবীর অর্হ্নিক গতি।

দিনের দৈর্ঘ ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে

৫০ বছর পর পৃথিবীর গতি এমন ভাবে বেড়ে যাওয়াটা  সত্যি চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে বিজ্ঞানীদের কপালে। তার উপর Aryeh nirenberg এর ভিডিওটি বিষয়টিকে আরো জোরালো করে তুলেছে। সম্প্রতি ভারতীয় চলচিত্র জগতের অন্যতম তারকা Riteish Deshmukh তার টুইটার আকাউন্টে Aryeh nirenberg এর ভিডিওটি পোস্ট করেন।

Leave a Reply