প্রচন্ড গতিতে ছুটে চলেছে এক দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোল, এমন দৃশ্য এই প্রথম

মহাকাশের নতুন করে আরও অবাক করা এক ঘটনার সাক্ষী হলেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। এতদিন ধরে ব্ল্যাকহোল বা কৃষ্ণ গহবর সম্পর্কে যে ধারণা নিয়ে চলছিলেন তারা, সেই ধারণাকে একেবারেই পাল্টে দিয়েছে এই ঘটনাটি। গ্যালাক্সির কেন্দ্রের কাছে থাকা ব্ল্যাকহোল কে ঝড়ের গতিতে ছুটতে দেখলেন বিজ্ঞানীরা। এমন ঘটনা এর আগে প্রত্যক্ষ করা তো দূরের কথা কল্পনাও করে দেখেননি কেউ।

প্রচন্ড গতিতে ছুটে চলেছে এক দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোল

মহাশূন্যে এই গ্যালাক্সি বা ছায়াপথের নাম ‘জে০৪৩৭+২৪৫৬’। যার দূরত্ব পৃথিবী থেকে ২২ কোটি ৮০ লক্ষ আলোকবর্ষ। এই ছায়াপথ টির কেন্দ্রেই অবস্থান দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোলটির। এটি এতদিনের ধ্যান ধারণাকে সম্পূর্ণ পাল্টে দিয়েছে বলেই জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ এর আগে কোনো ব্ল্যাকহোল কেই নিজের অবস্থান থেকে সরে যেতে দেখা যায়নি।

গতিশীল এই ব্ল্যাকহোল আবিষ্কার করেছে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোফিজিক্স এর গবেষকরা। গবেষকরা জানান, এই ব্ল্যাকহোলএর গতির পরিমাণ প্রচন্ড এবং নির্দিষ্ট দিক লক্ষ করে এটি চলছে না। এর গতিবেগ প্রায় ৪৮১০ কিলোমিটার প্রতি সেকেন্ডে (২৯৯০ মাইল প্রতি সেকেন্ড)। গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্য গুলি প্রকাশ করা হয়েছে ‘দ্যা অ্যাস্ট্রোফিজিক্যাল জার্নাল’ নামের একটি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান গবেষণা পত্রিকায়।

আরো পড়ুন – আমেরিকার আকাশে ভয়ংকর উল্কা বিস্ফোরণ, ক্ষমতা ছিল ২০০ কেজি TNT-এর সমান

ব্ল্যাকহোলের এমন গতির কারণ কি?
মহাকাশ বিজ্ঞান এর পূর্বে এমন ঘটনা কখনো ঘটতে দেখা যায়নি। যে কারণে গবেষকরা সঠিক ব্যাখ্যাটি দিতে পারছেন না। গ্যালাক্সির মাঝে থাকা দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোল গুলি সূর্যের ভরের ৩০ লক্ষ গুণ হয়ে থাকে, যে কারণে এতটা ওজন নিয়ে একটা ব্ল্যাকহোলের এতটা গতিতে ছুটে যাওয়ার কারণটা বেশ রহস্যের। তবে বিজ্ঞানীদের মতে এমন ঘটনা ঘটার বেশ কয়েকটি কারণ থাকতে পারে, যেমন- একটি গ্যালাক্সির সাথে অন্য গ্যালাক্সির ধাক্কা লাগা বা একটি দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোলের সাথে অন্য গ্যালাক্সির ব্ল্যাকহোলের ধাক্কা। যার ফলে সৃষ্ট প্রচন্ড শক্তিতে গ্যালাক্সি মাঝে থাকা ব্ল্যাকহোল টির এই প্রচন্ড গতি অর্জন। এমন বেশ কয়েকটি কারণ এর কথা উল্লেখ করেছেন বিজ্ঞানীরা। তবে সঠিক কারণটি তারা বলতে পারেননি।

হাইড্রোজেন গ্যাস দ্বারা তৈরি সম্পূর্ণ একটি গ্যালাক্সির মাঝে থাকা এই দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোল টির ছুটে যাওয়ার সাথে আরও এক অদ্ভুত ঘটনা লক্ষ্য করেছে গবেষকরা। তারা জানিয়েছেন ব্ল্যাকহোল টির সাথে হাইড্রোজেনের যে গ্যাসের মেঘ গ্যালাক্সিতে রয়েছে সেটিও গতিশীল। তবে এর গতিবেগ ব্ল্যাকহোল টির চেয়েও অনেক বেশি, প্রায় ৪ হাজার ৯১০ কিলোমিটার প্রতি সেকেন্ড। সম্পূর্ণ গ্যালাক্সি, যেটির মাঝে ব্ল্যাকহোলটি অবস্থিত তার সঙ্গে গ্যালাক্সির গতিবেগের এই পার্থক্য আরো হতবাক করেছে গবেষকদের।

“প্রচন্ড গতিতে ছুটে চলেছে এক দৈত্যাকার ব্ল্যাকহোল, এমন দৃশ্য এই প্রথম”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply