তিনটি ছায়াপথের সংঘর্ষ! অত্যাশ্চর্য ছবি শেয়ার করল নাসার হাবল টেলিস্কোপ

তিনটি ছায়াপথের সংঘর্ষ! অত্যাশ্চর্য ছবি শেয়ার করল নাসার হাবল টেলিস্কোপ

সংঘর্ষ আমরা প্রতিনিয়ত কতই না দেখে থাকি, তবে মহাকাশের ছায়াপথের মধ্যে সংঘর্ষ এই প্রথম ধরা পড়ল একটি টেলিস্কোপ-এর চোখে। আমেরিকার অন্যতম মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা) মহাকাশের অদ্ভুত দৃশ্য গুলি ধরার জন্য হাবল টেলিস্কোপ লঞ্চ করেছে কয়েক যুগ আগে। এবার সেই টেলিস্কোপের চোখেই ধরা পড়ল এমন এক অত্যাশ্চর্য দৃশ্য। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে একাধিক ছায়াপথের মধ্যে তুমুল লড়াই। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন তিনটি ছায়াপথ যেন এক সঙ্গে দড়ি টানাটানির খেলা খেলছে।

ছায়াপথ গুলির মধ্যে এমন সংঘর্ষ এর আগে খুব কমই চোখে পড়েছে। তবে ছায়াপথের মধ্যে এমন সংঘর্ষের কারণ কি? জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মতে তিনটি গ্যালাক্সি বা ছায়াপথের মাত্রাতিরিক্ত গ্র্যাভিটেশনাল ফোর্স বা মাধ্যাকর্ষণ শক্তির কারণে এমনটা হচ্ছে।

সম্প্রতি মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা তাদের ওয়েবসাইটে ছবিটি প্রকাশ করেছেন। হাবল টেলিস্কোপ এর চোখে ধরা পরা এই অদ্ভুত ছবি টির নাম দেওয়া হয়েছে ‘Dramatic triplet of galaxies’। ছবিটি শুধু নাসার ওয়েবসাইটে শেয়ার করা হয়নি, হাবল টেলিস্কোপ এর অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলেও ছবিটি প্রকাশ পেয়েছে। নাসার তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ছায়াপথ বা গ্যালাক্সি তিনটি Arp 195 সিস্টেমের অন্তর্গত।

Arp সিস্টেম কি? এই Arp সিস্টেমের অন্তর্ভুক্ত হয় সেইসব ছায়াপথ গুলি যেগুলি গ্র্যাভিটেশনাল পুল বা মাধ্যাকর্ষণ শক্তির কারণে অন্যান্য ছায়াপথকে বিরক্ত করে। অর্থাৎ যখন একটি ছায়াপথ এর সঙ্গে তিন বা তার অধিক ছায়াপথ এর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় তখন তাকে বলা হয় ‘ডিস্টার্বিং গ্যালাক্সি’। আর এই ধরনের ডিস্টার্বিং গ্যালাক্সি দেখা যায় Arp 195 এ। ১৯৬৬ সালে মোট ৩৩৮ টি গ্যালাক্সি নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি Arp প্রকাশ করেছিল।

আরো পড়ুন-সূর্যের নতুন স্তরের আবিস্কার করলেন দুই ভারতীয় বিজ্ঞানী

নাসার অন্যতম হাবল টেলিস্কোপের চোখে ধরা পড়া ছবিটিতে দেখা মিলেছে তিনটি ছায়াপথের মধ্যে তৈরি হওয়া সংঘর্ষ। যে সংঘর্ষের কারণে তৈরি হয়েছে টাইডাল টেল। এই ধরনের টাইটেল টেল তখনই তৈরি হয় যখন ছায়াপথের মধ্যে গ্র্যাভিটেশনাল ইন্টারেকশন ঘটে। যার ফলে ছায়াপথের বাইরের অংশ থেকে গ্যাসীয় উপাদান বা নক্ষত্ররা আলাদা হয়ে যায়।

Previous articleকাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে সিদ্ধান্ত জানানো আইসিসি
Next articleঘাগড়া এবং পরচুলাতে পায়েল সরকার কে টক্কর দিলেন মীর। সাক্ষী থাকলেন আবির
আমরা Extra Gyaan এর সদস্যরা পেশাগতভাবে ব্লগিং এর সঙ্গে যুক্ত। আমরা ইন্টারনেট, প্রযুক্তি, নাসা, মহাকাশের বিভিন্ন তথ্য, শিক্ষাগত দিক ও খেলাধুলার বিষয়ে নিবন্ধ লিখে থাকি সম্পূর্ণ বাংলা ভাষায়। আমাদের উদ্দেশ্য হলো বাংলা ভাষায় আপনাদের সামনে সেরা তথ্য তুলে ধরা।

1 COMMENT

Leave a Reply