টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি, কি বললেন তিনি

টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি, কি বললেন তিনি

সম্প্রতি ১৫ জানুয়ারি বিরাট কোহলি ভারতীয় দলের টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। বিরাট কোহলির হঠাৎই এমন সিদ্ধান্তে অনেকেই অবাক হয়েছেন। কারণ সম্প্রতি তিনি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন, এরপর একদিনের ক্রিকেটের অধিনায়ক থেকেও ছেঁটে ফেলা হয় কোহলি কে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট ম্যাচ জয়ী হওয়ার পরও সিরিজ শেষে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত হয় ভারত। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অধিনায়কত্ব ছাড়ার বার্তা তিনি পোস্ট করেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন,
“দলকে সঠিক পথে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রতিদিন ৭ বছর কঠোর পরিশ্রম এবং নিরলস অধ্যবসায় করেছি। আমি পরম সততার সাথে এই কাজটি করেছি এবং সেখানে কিছুই ছেড়ে যায়নি। প্রতিটি জিনিসই কোনো না কোনো পর্যায়ে থেমে যেতে হয় এবং ভারতের টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে আমার জন্য এটা এখন সময়। যাত্রাপথে অনেক উত্থান-পতন হয়েছে, কিন্তু কখনোই চেষ্টার অভাব বা বিশ্বাসের অভাব হয়নি। আমি সবসময় আমার সবকিছুতে আমার ১২০ শতাংশ দিতে বিশ্বাস করি এবং যদি আমি তা করতে না পারি, আমি জানি এটি করা সঠিক জিনিস নয়। আমার অন্তরে সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা আছে এবং আমি আমার দলের প্রতি অসৎ হতে পারি না।”

“আমি বিসিসিআইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাকে এত দীর্ঘ সময়ের জন্য আমার দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ দেওয়ার জন্য এবং আরও গুরুত্বপূর্ণভাবে সেই সমস্ত সতীর্থদের যারা প্রথম দিন থেকেই দলের জন্য আমার দৃষ্টিভঙ্গি ছিনিয়েছিলেন এবং কোনও পরিস্থিতিতে কখনও হাল ছাড়েননি। আপনারা এই যাত্রাটিকে অনেক স্মরণীয় এবং সুন্দর করে তুলেছেন। রবি ভাই এবং সহকারি গ্রুপের কাছে যারা এই বাহনের পেছনের ইঞ্জিন ছিলেন, যা আমাদেরকে টেস্ট ক্রিকেটে ধারাবাহিকভাবে উপরের দিকে নিয়ে গেছে, আপনারা সবাই এই দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রাণবন্ত করতে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছেন। শেষ পর্যন্ত এমএস ধোনিকে অনেক ধন্যবাদ যিনি আমাকে একজন ক্যাপ্টেন হিসেবে বিশ্বাস করেছিলেন এবং আমাকে একজন সক্ষম ব্যক্তি হিসেবে দেখেছেন যে ভারতীয় ক্রিকেটকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে।”

আরো পড়ুন- আইপিএল 2022 Retained খেলোয়ারদের তালিকা, 8 ফ্র্যাঞ্চাইজি

কোহলি ভারতের টেস্ট ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হয়েছিলেন ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। যেখানে মহেন্দ্র সিং ধোনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন। এরপর ক্রমাগতই টেস্ট ক্রিকেটে ভারতের উত্থানে কোহলির বিরাট ভূমিকা রয়েছে। তারমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পরপর দু-বার সিরিজ জয় ও বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছানো। কোহলি অধিনায়ক থাকাকালীন ভারত টেস্ট ক্রিকেটে মোট ৪০ টি ম্যাচ জয়ী হয়েছে।

Previous articleVi নেটওয়ার্ক এর মালিকানা এখন ভারত সরকারের হতে! বিস্তারিত দেখুন
Next articleঅভিষেক ম্যাচেই অবসর – এরকম বিরল কৃতিত্ব আছে একজনেরি
আমরা Extra Gyaan এর সদস্যরা পেশাগতভাবে ব্লগিং এর সঙ্গে যুক্ত। আমরা ইন্টারনেট, প্রযুক্তি, নাসা, মহাকাশের বিভিন্ন তথ্য, শিক্ষাগত দিক ও খেলাধুলার বিষয়ে নিবন্ধ লিখে থাকি সম্পূর্ণ বাংলা ভাষায়। আমাদের উদ্দেশ্য হলো বাংলা ভাষায় আপনাদের সামনে সেরা তথ্য তুলে ধরা।

Leave a Reply