পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম গাড়ি। গাড়িতে সুমিংপুল, হেলিপ্যাড ও গলফ কোর্স মাঠ! দেখুন সেই গাড়ি

পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম গাড়ি: হ্যাঁ, শিরোনাম দেখে বুঝতেই পারছেন গাড়িতে কি কি রয়েছে। এই গাড়ি গল্প নয় বাস্তবে রয়েছে গাড়িটির নাম “দ্য আমেরিকান ড্রিম কার” (the American dream car)। ১৯৮৬ সালে এই গাড়িটি প্রথম তৈরি হয়েছিল আমেরিকাতে এবং বিশ্বের সবচেয়ে বড় গাড়ি রূপে ‘গিনিস বুক ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে’ নাম লিখিয়েছিল। গাড়িটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১০০ ফুটের কাছাকাছি, যেখানে আমাদের সাধারণ চারচাকা গাড়ির দৈর্ঘ্য থাকে ৮-১০ ফুট।

পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম গাড়ি

এই আমেরিকান ড্রিম কার তৈরি করেছিলেন ‘জে ওরবার্গ’। বিশেষত তিনি গাড়ি থেকে একটি মডেল গাড়ি রূপে তৈরি করেছিলেন যা বিশেষত সিনেমার শুটিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হতো। এছাড়া গাড়িটিকে ব্যক্তিগত প্রয়োজনেও ভাড়া দেওয়া হতো। গাড়িটির প্রধান বিশেষত্ব গুলি হল গাড়িটির মধ্যে ছিলো একটি হেলিপ্যাড, এছাড়া গাড়িটিতে ছিল ছোট গলফ কোর্স, একইসঙ্গে সুইমিং পুলেরও ব্যবস্থা ছিল।

আরো পড়ুন- ১১ কোটি বছর পুরনো ডাইনোসরের জীবাশ্ম! হতবাক বিজ্ঞানীরা

পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা গাড়ি

এই প্রধান তিনটি জিনিস ছাড়াও গাড়ির মধ্যে ছিল টিভি, ফ্রিজ, টেলিফোন ও বিলাসবহুল বসার জায়গা। কিন্তু পরবর্তীকালে গাড়িটি বেশিদিন সচল রাখা সম্ভব হয়নি কারণ গাড়িটির পরিচর্যা খরচা অনেক বেশি হয়ে যাচ্ছিল। সামনে-পেছনে মিলিয়ে গাড়িটির মধ্যে ছিলো আটটি ইঞ্জিন, মোট ২৬ টি চাকার সাহায্যে গাড়ি চলত। গাড়িটি অচল হয়ে যাওয়ার পর ২০১৯ সালে পুনরায় গাড়িটিকে সচল করার পরিকল্পনা নেওয়া হয় আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে। আশা করা যাচ্ছে খুব শীঘ্রই গাড়িটি আবারো গাড়ি প্রেমীদের মন জয় করবে।

“পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম গাড়ি। গাড়িতে সুমিংপুল, হেলিপ্যাড ও গলফ কোর্স মাঠ! দেখুন সেই গাড়ি”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply