বাস্তবে কি রেডিওঅ্যাকটিভ মাকড়সা তৈরি সত্যিই সম্ভব? যা আপনাকে দেবে মাকড়সার মতো ক্ষমতা

হলিউডের সুপার হিরো সিনেমা দেখানো মাকড়সা মানুষ বা স্পাইডারম্যানকে আমরা প্রায় সকলেই চিনি। যে তার অসাধারণ শক্তি গুলি একটি মাকড়সার কামড়ে থেকে পেয়েছিল। সিনেমাতে দেখানো মাকড়সাটি ছিল রেডিওঅ্যাকটিভ, অর্থাৎ তেজস্ক্রিয় পদার্থ দ্বারা তৈরি। কিন্তু বাস্তবে কি রেডিওঅ্যাকটিভ মাকড়সা তৈরি সত্যিই সম্ভব? যা আপনাকে দেবে মাকড়সার মতো ক্ষমতা।

সিনেমাতে ও কমিক গুলিতে দেখানো মাকড়সা যার কামড়ে মাকড়সার মতো শক্তি লাভ সম্ভব, সে বিষয়ে গবেষকরা কিন্তু গবেষণা করতে বাদ রাখেনি। তবে কি বিজ্ঞান ব্যবহার করে একটি মাকড়সামানব বা স্পাইডারম্যান (spider-man) তৈরি করতে পেরেছেন বিজ্ঞানীরা। স্পাইডারম্যান বা মাকড়শা মানুষ তার মাকড়শার মতো দক্ষতা গুলি পেয়েছিল একটি রেডিওঅ্যাকটিভ মাকড়সার কামড়ে। তবে দুর্ভাগ্যবশত এটি সাধারণ মানুষের সাথে হওয়াটা সম্ভব নয়। কেন সম্ভব নয়, কেনই বা মাকড়সার কামড়ের প্রভাব মানবদেহে পড়বে না? সে বিষয়ে তবে জেনে নেওয়া যাক।

আরও পড়ুন- পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত মাকড়শা

আমরা এক বছরে অর্থাৎ ৩৬৫ দিনে সূর্য ও অন্যান্য প্রাকৃতিক তেজস্ক্রিয় গ্যাস গুলি থেকে প্রায় ৩ মিলিসিভার্ট (এমএসভি/mSv) এর সংস্পর্শে আসি। লেখিকা ক্যাটি ওয়াল্ডম্যানের মতে, একটি মাকড়সা কামড়ালে যে পরিমাণ বিষ নির্গত হয় তার তেজস্ক্রিয়তার মাত্রা সম্ভবত .০০০০৩ থেকে .০০০০০৩ মিলিসিভার্ট (এমএসভি/mSv) এর মধ্যেই থাকে। সেই তুলনায় একটি কলাতে (ফল) তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ পটাশিয়ামের পরিমাণ ৪০ পর্যন্ত হয়ে থাকে। অর্থাৎ একটি মাকড়শার তেজস্ক্রিয়তার পরিমাণ কতটা কম বুঝে নিতে অসুবিধা হয়না। 

মাকড়সার মতো শক্তি পেতে গেলে যটি সব থেকে বেশি প্রয়োজন সেটি হল ডিএনএ (DNA) এর পরিবর্তন। কোন মাকড়শার কামড়ে যদি মানবদেহের ডিএনএর পরিবর্তনে প্রভাব ফেলতে হয় তবে সে মাকড়সাটি কে সাধারণ হলে চলবে না। একটি পারমাণবিক চুল্লির যতটা পরিমাণ ক্ষমতা, ঠিক ততটাই শক্তি থাকতে হবে মাকড়শা টির মধ্যে। তবেই সেটি সক্ষম হবে ডিএনএ (DNA) পরিবর্তন ঘটাতে। বলাবাহুল্য পারমাণবিক চুল্লি শক্তি একটি মাকড়সার মধ্যে প্রেরণ করলেন নিঃসন্দেহে সেটি মারা যাবে। কোনো ভাবেই মাকড়শা টিকে রেডিও অ্যাক্টিভ বা তেজস্ক্রিয় বানানো সম্ভব নয়। মানবদেহের ডিএনএ পরিবর্তন করতে প্রয়োজন আয়োনাইজিং রেডিয়েশনের, যা দেহের রাসায়নিক বন্ধন গুলো ভেঙে ডিএনএ পরিবর্তন ঘটাতে পারে। তবে তা সামান্য মাকড়সা দ্বারা কখনো সম্ভব না। এমনকি বিজ্ঞানীরা যদি ল্যাবে মাকড়শা টিকে রেডিও অ্যাক্টিভ বানিয়েও ফেলেন তবুও তার মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণ বিষ থাকবে না, যা একটি মানুষের ডিএনএ এর পরিবর্তন ঘটাতে পারে। 

এতক্ষণে একটি মোটামুটি ধারণা জন্মেছে যে, সামান্য একটি মাকড়সার কামড়ে কখনোই মাকড়সার মতো ক্ষমতা জন্মাবে না এবং আমাদের ডিএনএ পরিবর্তন সক্ষম হবে না। তবে সুপারহিরো সিনেমা গুলিতে দেখ আমরা দেখেছি মানুষ দ্বারা মাকড়সার মতো জাল তৈরি করে, তা থেকে ঝুলে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যেতে। এটা কি কোন ভাবেই সম্ভব? মানুষ কি মাকড়শার মতো সিল্ক উৎপাদন করতে পারে? সংক্ষিপ্ত উত্তর হলো না। তবে বিজ্ঞানীরা কিন্তু এক আশ্চর্য ঘটনা ঘটিয়েছেন। মাকড়সার যে জিন গুলি সিল্ক তৈরি করে সেগুলি ছাগলের মধ্যে কোড করতে সক্ষম হয়েছেন তারা। ব্যাপারটা হাস্যকর হলেও বিজ্ঞানিরা আবিষ্কার করে ফেলেছেন স্পাইডার-গোট বা মাকড়শা ছাগলের।

(Disclaimer: উপরে উল্লেখিত নিবন্ধটি সম্পূর্ণ বিনোদনে জন্য লেখা হয়েছে।)

Leave a Reply