জেফ বেজোস-এর ব্লু-অরিজিন লঞ্চ করতে চলেছেন নিজস্ব স্পেস স্টেশন, নাম কি জানেন?

নাসা এবং চীনের পর মহাকাশে স্টেশন লঞ্চ করতে চলেছে জেফ বেজোস এর মহাকাশ সংস্থা ব্লু-অরিজিন। অ্যামাজনের প্রাক্তন সিইও এবং বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির মধ্যে অন্যতম জেফ বেজোস, যার নিজস্ব একটি মহাকাশ সংস্থা রয়েছে। যে সংস্থার নাম ব্লু অরিজিন। কিছুদিন আগেই মহাকাশ পর্যটন ব্যবসায় উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করেছে জেফ এবং তার ব্লু অরিজিন সংস্থা। তবে এবার স্পেস স্টেশন লঞ্চের কথা ভাবছেন তিনি। সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয় এই দশকের দ্বিতীয়ভাগে স্পেস স্টেশন লঞ্চের পরিকল্পনা করছেন তারা, যে স্পেস স্টেশনে ১০ জন মহাকাশচারী থাকতে পারবেন একসঙ্গে। স্পেস স্টেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

সম্প্রতি একটি সংবাদ সম্মেলনে ব্লু অরিজিন সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয় তাদের নতুন স্পেস স্টেশনের নাম হবে অরবিটাল রিফ। এটি হবে মহাকাশের বাণিজ্যিক পার্ক বা বিজনেস পার্ক। এর সঙ্গে মিশ্রিত একটি স্পেস স্টেশন। এছাড়াও স্পেস স্টেশনে থাকবে মাইক্রো গ্রাভিটি সংক্রান্ত গবেষণা। গবেষণায় সাহায্য করবে বোয়িং এন্ড অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটি।

আরো পড়ুন-পুনরায় যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা দিল নাসার হাবল স্পেস টেলিস্কোপে, চালু করা হলো সেফ মোডে

নাসার তরফ থেকে জানানো হয়েছে বর্তমানে মহাকাশে এই ধরনের স্টেশন নির্মাণ এবং কম খরচে মহাকাশ ভ্রমণ চর্চায় রয়েছে। আগামী ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই প্রাইভেট কোম্পানিগুলোর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে নাসা। মার্কিন মহাকাশ সংস্থা এক্সিয়াম নামে একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তারা। প্রাথমিকভাবে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হলেও পরবর্তীকালে free-flaying হবে এই স্পেস স্টেশন গুলি। আগামী ২০২৭ সালের মধ্যে একটি পরিকল্পিত স্পেস স্টেশন তৈরি করবে আরো একটি কোম্পানি যে স্পেস স্টেশনের নাম হবে স্টারল্যাব।

“জেফ বেজোস-এর ব্লু-অরিজিন লঞ্চ করতে চলেছেন নিজস্ব স্পেস স্টেশন, নাম কি জানেন?”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply