রহস্যময় ভাবে উজ্জ্বলতা কমছে এক বিশাল ব্ল্যাকহোলের, কারণ বিশেষজ্ঞদেরও অজানা

বিভিন্ন মহাকাশ বিজ্ঞানীদের বেশ কয়েকবছর গবেষণায় উঠে এসেছে এক রহস্যময় তথ্য। যার সূচনা ২০১৮ সাল থেকে। মহাকাশের সবচেয়ে উজ্জ্বল এক্স-রে ধীরে ধীরে কমে আসছে। কিভাবে বা কেন এই আলোর উজ্জ্বলতা কমছে সে সম্পর্কে বিজ্ঞানীরাও পুরোপুরি নিশ্চিত হতে পারছেন না।

রহস্যময় ভাবে উজ্জ্বলতা কমছে এক বিশাল ব্ল্যাকহোলের

মহাকাশে সুদূর প্রান্তে তৈরি হওয়া একটি ব্ল্যাক হোল রহস্যময় ভাবে তার এক্স-রে এর উজ্জ্বলতা হারাচ্ছে। যেটির নাম GRS 1915+105। এই GRS 1915+105 একটি বাইনারি স্টার সিস্টেম, যেটি সাধারণ একটি তারা এবং একটি ব্ল্যাকহোল দ্বারা তৈরি হয়। এটি প্রথমবার ১৭৯২ সালের ১৫ই আগস্ট আবিষ্কার করা হয়েছিল। এই বাইনারি স্টার সিস্টেম পৃথিবী থেকে ৩৬ হাজার আলোকবর্ষ দূরে অবস্থান করছে। একটি সাধারণ তারা এবং মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির দ্বিতীয় সবচেয়ে ভারী ব্ল্যাকহোল এর সমন্বয়ে তৈরি GRS 1915+105 স্টার সিস্টেম। ব্ল্যাকহোলটি ভর সূর্যের তুলনায় ১০ থেকে ১৮গুণ বেশি এবং গ্যালাক্টিক কেন্দ্রে থাকা সুপার্মাসিভ ব্লাকহোল যেটির নাম Sagittarius A* (SgraA*) এর পরবর্তী বৃহত্তম ব্ল্যাকহোল।

আরো পড়ুন – মাত্র তিন মাসেই লালগ্রহে পৌছাতে পারবেন মহাকাশচারীরা, জানালো NASA

পৃথিবী থেকে ৩৬,০০০ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত এই GRS 1915+105 ব্ল্যাকহোল কি সাধারণ একটি তীব্র এক্স-রে আলো দ্বারা জ্বলজ্বল করে। ব্ল্যাকহোল টি শোষণ করে তার পাশে থাকা তারাটির কাছ থেকেই। ব্ল্যাকহোলটি তার পার্শ্ববর্তী তারাটিকে শোষণ করা কালীন তারার বিভিন্ন পদার্থ গুলি কসমিক ড্রেন এর মাধ্যমে ব্ল্যাকহোল টির মাঝখানে অন্ধকারে প্রবেশ করে এবং একটি বলয়ের সৃষ্টি করে। ব্ল্যাকহোলের কেন্দ্রে প্রবেশ করা কালীন পদার্থ গুলির ঘর্ষণের ফলে এক্স রশ্মির সৃষ্টি হয় এবং ব্ল্যাকহোল যতই তারাটিকে শোষণ করতে থাকে এটি আরও উজ্জ্বল হতে থাকে।

কিন্তু এখানেই অদ্ভুত কিছু দেখতে পেয়েছেন গবেষকরা। তারা জানিয়েছেন গত ২০১৮ এর জুলাই মাস থেকেই GRS 1915+105 স্টার সিস্টেমটির আলো ধীরে ধীরে কমে আসছে। ২০১৯ এটির আলো আগের চেয়ে আরো অনেকটাই কমেছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এখনো পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা এমন কিছুই প্রত্যক্ষ করেননি আগে কখনোই।

এক বিশাল ব্ল্যাকহোলের রহস্যময় ভাবে উজ্জ্বলতা কমছে

কিন্তু কীভাবে এই রশ্মির উজ্জ্বলতা কমছে তা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা গবেষণা করেছেন। যেখানে ব্ল্যাকহোল গুলি তাদের পার্শ্ববর্তী তারাগুলিকে শোষণের মাধ্যমে ধীরে ধীরে এক্স রশ্মী নির্গত করে এবং উজ্জ্বল হয়ে ওঠে এর ক্ষেত্রেও ঠিক তেমনটাই হচ্ছিল। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে  বেড়ে যাওয়ার বদলে ধীরে ধীরে কমছে এর উজ্জ্বলতা। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে সমস্ত ব্ল্যাকহোল গুলি বড় নক্ষত্রের সাথে থাকে সেগুলি কখনো কখনো তাদের উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। আর এই উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলার পিছনে কারণ হিসেবে তারা জানিয়েছেন, বাতাসের কনা এবং গ্যাস দ্বারা তৈরি মেঘের কথা। ব্ল্যাকহোল এর ভিতরে শোষণ হতে থাকা তারার থেকে তৈরি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা এবং গ্যাসের দ্বারা তৈরি মেঘ এই এক্স রশ্মির আলো কে ছড়িয়ে পড়তে বাধা দেয়। যে কারণে মহাকাশে থাকার টেলিস্কোপ গুলি থেকে এর ছবি তোলার সময় এই গ্যাস এবং ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা গুলি বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এক কথায় বলতে গেলে এই রহস্যময় জিনিস যাই হোক না কেন সেগুলি আসছে সরাসরি ব্ল্যাকহোল টির বলয় থেকেই।

“রহস্যময় ভাবে উজ্জ্বলতা কমছে এক বিশাল ব্ল্যাকহোলের, কারণ বিশেষজ্ঞদেরও অজানা”-এ 2-টি মন্তব্য

Leave a Reply