বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রেহাই পেলো আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন

মহাকাশে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে চলো আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন (International space station) বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রেহাই পেল। নাসা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনটি হঠাৎই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিজের কক্ষপথ থেকে সরে যায়। আমেরিকার অন্যতম মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা) এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে স্টেশনে থাকা একটি রাশিয়ান রিসার্চ মডিউল থেকে অসাবধানবশত স্বয়ংক্রিয়ভাবে জেট থ্রাস্টার সক্রিয় হয়ে যায়। যার ফলে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন নিজের কক্ষপথে থেকে প্রায় ৪৫ মিনিটের জন্য নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছিল।

নাসা জানিয়েছে রাশিয়ার এই মডিউলটি কিছুদিন আগে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে স্থাপন করা হয়েছিল। এমন দুর্ঘটনার কারণে নাসার বোয়িং সিএসটি ১০০ স্টারলাইনার রকেট উৎক্ষেপণ স্থগিত রাখতে হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এটি আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে স্থাপন করার কথা ছিল। নাসা জানিয়েছে স্পেস স্টেশনে উপস্থিত ক্রু মেম্বারদের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি, তারা সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের মতে অনেক বড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনটি। যদিও সময়মতোই স্টেশনটিকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছিল তবুও এই ঘটনায় অনেক বড় ক্ষতি হতে পারতো। এমনকি ক্রু মেম্বারদের বড় বিপদের সম্ভাবনা ছিল। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, গত বৃহস্পতিবার রাশিয়া নতুন একটি মডিউল স্পেস স্টেশনে পাঠায় যে মডিউলটি নাম ‘Nauka‘। এই মডিউলটি উৎক্ষেপণের আগে প্রযুক্তিগত সমস্যার সম্মুখীন হয় রাশিয়ার ল্যাব। তবে এটি অবশেষে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে পৌঁছার। পৌঁছানোর ঠিক কয়েক ঘন্টা পরেই জেট থ্রাস্টারটি চালু হয়ে যায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে। এর পরেই ভূপৃষ্ঠ থেকে ৪০২ কিলোমিটার উপরে অবস্থিত স্পেস স্টেশনটি নিজের কক্ষপথ থেকে সরে যায় প্রায় ৪৫ মিনিটের জন্য। এমনকি নাসার সঙ্গে সম্পূর্ণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয় আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের।

আরো পড়ুন-মঙ্গলে জলের খোঁজ? সফলতা হাতের নাগালে, জানাল নাসা

নাসা জানিয়েছে তাদের বোয়িং সিএসটি ১০০ স্টারলাইনার রকেট উৎক্ষেপণের দিন পিছিয়ে ৩ আগস্ট করা হয়েছে। যদি সেইদিনও কোন সমস্যা হয় তবে আগামী ৮ আগস্ট লঞ্চ করা হতে পারে বোয়িং সিএসটি ১০০ স্টারলাইনার। বর্তমানে স্পেস স্টেশনে মেম্বারদের মধ্যে রয়েছেন দুইজন রাশিয়ার কসমোনট, আমেরিকার তিনজন অ্যাস্ট্রোনট, ইউরোপীয় এজেন্সির একজন ফরাসি অ্যাস্ট্রোনট এবং জাপানের একজন অ্যাস্ট্রোনট।

“বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রেহাই পেলো আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply