চিনের স্পেস স্টেশনের বাইরে স্পেসওয়াক করলেন চিনের দুই নভশ্চর

সম্প্রতি চিন তাদের নতুন স্পেসস্টেশন মহাকাশে লঞ্চ করেছে। আর সেই স্পেস স্টেশনের বাইরেই চিনের দুই নভশ্চরকে স্পেসওয়াক করতে দেখা গেল। চিনের একটি চ্যানেল দ্বারা ওই দুই নভশ্চরের স্পেসওয়াক এর ছবি সামনে এসেছে। যে ছবিতে তাদের গতিবিধি ধরা পড়েছে। চিনের তরফ থেকে জানানো হয়, স্পেসস্টেশনের এর বাইরে ১৫ মিটার একটি লম্বা রোবটিক হাত লাগানোর চেষ্টা করছিলেন ওই দুই নভশ্চর।

কিছুদিন আগেই চিনের তরফ থেকে তিনজন নভশ্চরকে তাদের স্পেসস্টেশনে পাঠানো হয়। যার মধ্যে ছিলেন Liu Boming, Tang Hongbo এবং Nie Haisheng। চিন জানিয়েছে, তাদের স্পেসেস্টেশনের বাইরে স্পেসওয়াক নিযুক্ত ছিলেন Liu এবং Tang। অপর দিকে Nie স্পেসস্টেশনের ভেতরে ছিলেন।

এই তিনজন নভশ্চর গত জুন মাসের ১৭ তারিখ স্পেসস্টেশনে পৌঁছেছিলেন। এবং আগামী তিন মাসের জন্য তারা সেখানেই থাকবেন। এই তিনজন নভশ্চরকে স্পেসস্টেশনে পাঠানোর মূল উদ্দেশ্য ছিল, কিছুদিন আগে চিন দ্বারা মঙ্গল গ্রহে পাঠানো রোবটটিক রোভারটি পরিচালনা করা। এবং আগামী তিন মাস ধরে তারা স্পেসস্টেশন থেকে মঙ্গল অভিযানের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবেন।

৪ জুলাই চিনের দুই নভশ্চর যখন স্পেস স্টেশনের বাইরে স্পেসওয়াকে নিযুক্ত ছিলেন সেই মুহূর্তে তাদের ছবি ধরা পড়ে। চিন জানিয়েছে, যে রোবোটিক আর্ম তারা স্পেসস্টেশনে যুক্ত করছেন সেটি পরবর্তীকালে বাকি স্পেস স্টেশনের সেটআপের কাজে সাহায্য করবে। আর এ সমস্তই চিনের স্টেট টিভি মিডিয়ার মাধ্যমে প্রকাশ্যে আসে। নভশ্চররা যে পোশাকটি পরে মহাকাশে স্পেসওয়াক করছেন সেটি বিশেষভাবে তৈরি। যে পোশাকটি ৬ ঘন্টা পর্যন্ত চলা স্পেসওয়াকে নভশ্চরদের সাহায্য করবে স্পেস স্টেশনের বাইরে ভেসে থাকতে।

আরো পড়ুন-স্পেস স্টেশনে পৌঁছালেন তিন জন নাভশ্চর, সাহায্য করলো চীনের মহাকাশযান

চিনের এই স্পেসস্টেশনটি পৃথিবীর বাইরে লোয়ার অরবিটে সবচেয়ে বেশিদিন টিকে থাকার জন্য তৈরি। আর এই স্পেসস্টেশনের সবচেয়ে বড় মডিউল টি হল ‘তিয়ানহে‘। যেটি গত ২৯এপ্রিল লঞ্চ করা হয়েছিল মহাকাশের উদ্দেশ্যে। স্পেসস্টেশনটির আরো দুটি মডিউল যুক্ত করা হবে ২০২২ সালে। যে মডিউল দুটির ওজন ৭০ টনের কাছাকাছি। আগামী দিনে এই ধরনের আরো ১১ মিশন করার কথা জানিয়েছে চিন।

Leave a Reply