160cc bike 2023: ২০২৩ সালের সেরা ১৬০cc বাইক কোনগুলো জানেন?

160cc bike 2023: ২০২৩ সালে বাজেট পেশের পর বিভিন্ন মোটরসাইকেল গুলির দাম অনেকটাই কমেছে। আজকে আমরা জানবো সবচেয়ে সেরা ১৬০cc বাইক সমন্ধ্যে।

আপনি যদি ২ চাকার বাইক গুলি খুব পছন্দ করে থাকেন এবং চলতি বছরেই একটি বাইক কেনা চিন্তাভাবনা করে থাকেন তবে আপনার অবশ্যই জেনে নেওয়া প্রয়োজন সবচেয়ে কম দামে ভালো বাইক কোনগুলি। দুর্দান্তর লুক, ফিচার ও ভালো মাইলেজ সহ বিভিন্ন গাড়ি রয়েছে যেগুলি আপনার বাজেটের মধ্যেই পেতে পারেন। এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমরা জানবো সবচেয়ে ভালো স্পেসিফিকেশন, মাইলেজ ও কম দামের ১৬০cc বাইকগুলি সম্পর্কে, যেখান থেকে আপনি বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের বাইকটি।

Hero Xtreme 160R:
ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোটরসাইকেল কোম্পানি হিরো এর এক্সট্রিম ১৬০ আর বাইকটি একটি দুর্দান্ত বাইক। এই বাইকের ইঞ্জিন ১৬৩cc এবং ১৪Nm ম্যাক্সিমাম টর্ক জেনারেট করে এই গাড়ির ইঞ্জিন। ফুয়েল ট্যাঙ্ক ক্যাপাসিটি দেয়া হয়েছে ১২ লিটার। বিভিন্ন রঙে উপলব্ধি থাকছে এই বাইকটি, যেমন স্টেলথ ২.০, ম্যাট ব্ল্যাক, পারল সিলভার হোয়াইট, ভাইব্রেট ব্লু এবং স্পোর্টস রেড। কলকাতায় এই বাইকটির এক্স শোরুম প্রাইজ ১,১৭,৭৮৬।

Honda Unicorn 160:
ভারতে হোন্ডা একটি জনপ্রিয় কোম্পানি। এই কোম্পানির হোন্ডা ইউনিকর্ন ১৬০ বাইকটিতে আপনি পাবেন ফোর স্ট্রোক এসআই, বিএস-সিক্স ১৬২.৭ সিসি ইঞ্জিন যা ১৪এমএম ম্যাক্সিমাম টর্ক জেনারেট করে, ৫৫০০ আরপিএম-এ। এই বাইকের ফুয়েল ট্যাঙ্ক ক্যাপাসিটি ১৩ লিটারের। এই গাড়িটি আপনি কিনতে পারবেন মোট চারটি রঙের। কলকাতায় এই গাড়ির এক্স শোরুম প্রাইস ১,০৭,৪০৫।

Avenger 160 Street:
ক্রুসার বাইকের মধ্যে অন্যতম bajaj avenger। bajaj avenger 160 স্ট্রীট বাইকটিতে আপনি পাচ্ছেন ১৬০ সিসির এয়ারকুল ইঞ্জিন যা সর্বোচ্চ ১৩.৭ নিউট্রন মিটার টর্চ জেনারেট করে ৭০০০ আরপিএমে। এই বাইকের ফুয়েল ট্যাঙ্ক ক্যাপাসিটি ১৩ লিটার। দুই ধরনের ব্রেকিং সিস্টেম রয়েছে একটি ড্রাম এবং অপরটির ডিস্ক। এই বাইকটি মোট দুটি রঙের বাজার উপলব্ধ একটি স্পাইসি রেড অন্যটি এবনি ব্ল্যাক। কলকাতায় এই বাইকের এক্স শোরুম প্রাইস ১,১৪,৯৬৩।

“160cc bike 2023: ২০২৩ সালের সেরা ১৬০cc বাইক কোনগুলো জানেন?”-এ 1-টি মন্তব্য

Leave a Reply