বন্ধ হয়ে গেল কোরিয়ান স্মার্টফোন সংস্থা LG

বেশ অনেকদিন থেকেই জল্পনা চলছিল যা অবশেষে পূর্ণতা পেয়েছে। বর্তমানে স্মার্টফোনের বাজার থেকে পুরোপুরি সরে গেল এলজি (lg smartphone) স্মার্টফোন সংস্থা। কোরিয়ান স্মার্টফোন সংস্থা এলজি বাজারে আর নতুন কোন স্মার্টফোন নিয়ে আসবে না, এমনটাই জানানো হয়েছে সংস্থার তরফ থেকে। তবে বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর পরিষেবা আপাতত সম্পূর্ণ বন্ধ করা হচ্ছে না।

ভারতের স্মার্টফোনের বাজার বর্তমানে শাওমি, রিয়েলমির মত চায়না কম্পানি গুলি এবং অন্যান্য দুর্দান্ত স্মার্টফোন যেমন অ্যাপল, স্যামসাংয়ের দখলে। যে কারণে এলজি ঠিকমত সুবিধা করে উঠতে পারছিলনা এখানে। স্মার্টফোন বিক্রয় কারী প্রায় প্রতিটি সংস্থার প্রধান লক্ষ্য ভারতীয় বাজার। কারণ এখানে স্মার্টফোনের চাহিদা অন্যান্য যে কোন বাজারের তুলনায় অনেকটাই বেশি। ভারতীয় বাজারে এলজি স্মার্টফোনের লাভ খুব একটা বেশি না হলেও উত্তর আমেরিকায় প্রায় ১০ শতাংশ এলজির দখলে। সবথেকে জনপ্রিয় দুই সংস্থা অ্যাপেল এবং স্যামসাংয়ের পরের স্থানটি এলজি স্মার্টফোনের।

আরো পড়ুন – দৈত্যাকার বরফে মোড়া ইউরেনাস নির্গত করছে এক্স-রশ্মি, কি বলছেন বিজ্ঞানীরা

আরও পড়ুন – রাত্রে ট্রেনের ভিতরে আর মোবাইল ল্যাপটপ চার্জ নয়, রেলের নয়া সিদ্ধান্ত

এলজি স্মার্টফোন সংস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পেছনে বড় একটা কারণ, গত প্রায় ৬ বছর ধরে লোকসানে চলছে এই কোরিয়ান সংস্থা। ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩৩,০১০ কোটি টাকার কাছাকাছি। যে কারণে এই কোরিয়ান সংস্থা জানিয়েছে তারা ভবিষ্যতে স্মার্টফোনের বাজারের সঙ্গে যুক্ত থাকবে না এবং ইলেকট্রিক যানবাহনের যন্ত্রাংস, স্মার্টফোনের সরঞ্জাম যেমন ডিসপ্লে এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নির্মাণের দিকে ঝুঁকবে।

স্মার্টফোন নির্মাণের কাজ সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিলেও পরিষেবা চালিয়ে যাবে এলজি এবং স্মার্টফোনের ইউনিটে কর্মরত কর্মীদের অন্যান্য ডিভিশনে নিযুক্ত করা হবে। তবে এভাবে বাজার থেকে সম্পূর্ণ চলে যাওয়ার কারণ কম দামে বাজার দখল করে রাখা চিনা স্মার্টফোনগুলো। যার জন্য নতুন আর কোন এলজি স্মার্টফোন ব্যবহারের সুযোগ পাবেন না কোন ভারতীয়। তবে অন্যান্য দেশগুলির ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষই।

“বন্ধ হয়ে গেল কোরিয়ান স্মার্টফোন সংস্থা LG”-এ 3-টি মন্তব্য

Leave a Reply