আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সুবিধা ও বৈশিষ্ট্য

আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সুবিধা ও বৈশিষ্ট্য: ভারতে মূলত দরিদ্র, সমাজের নিম্ন অংশ এবং দুর্বল জনগোষ্ঠীর জন্য প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর সারা ভারত জুড়ে বাস্তবায়িত করা হয়, যে যোজনা আয়ুষ্মান ভারত যোজনা নামেও পরিচিত। এই প্রকল্প একটি স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্প। এই যোজনার সাহায্যে দরিদ্র, সমাজের নিম্ন অংশের মানুষ এবং দুর্বল পরিবারের মানুষেরা চিকিৎসায় জরুরি অবস্থার কারণে হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে আর্থিক সুরক্ষা ও সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে ভারতীয় কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে।

২০১৮ সালের ভারতের বাজেট অধিবেশনে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি এই প্রকল্পের ঘোষণা করেন। এই প্রকল্পের আওতায় আসা প্রতিটি পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত নগদহীন স্বাস্থ্য বীমার সুবিধা প্রদান করা হবে সরকারের তরফ থেকে। এই প্রকল্পের সাথে সরাসরি যুক্ত হতে পারবেন ১০ কোটি বিপিএল ধারক পরিবার (প্রায় ৫০ কোটি মানুষ)। এছাড়াও বাকি জনগোষ্ঠীকে এই প্রকল্পের আওতায় আনার পরিকল্পনা করেছে ভারত সরকার। এই প্রকল্প ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদি ভিমরাও আম্বেদকর এর জন্মবার্ষিকীতে ১৪ই এপ্রিল ২০১৮ সালে ঝাড়খণ্ডের রাচি জেলা থেকে চালু করেছিলেন। আয়ুষ্মান ভারত যোজনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এই নিবন্ধটি পড়ুন।

আয়ুষ্মান ভারত যোজনা প্রকল্পের বেশ অনেকগুলি সুবিধা রয়েছে। এই নিবন্ধে আমরা জানবো প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা বা আয়ুষ্মান ভারত যোজনার বৈশিষ্ট্য ও আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সুবিধা গুলি।

আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সুবিধা

পরিবার প্রতি ৫ লক্ষ টাকা স্বাস্থ্যসেবা কভারেজ:

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে লঞ্চ হয় আয়ুষ্মান ভারত যোজনা। এই জোজনা ভারতে কার্যকর করার প্রধান উদ্দেশ্য ছিল ৫০ কোটি মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা। এই যোজনার মাধ্যমে প্রত্যেকটি পরিবারকে যারা দারিদ্র্যসীমার নিচে রয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা স্বাস্থ্যসেবা কভার হিসেবে প্রদান করা হয়। সরকারের তরফ থেকে বিনামূল্যে দেয়া হয় এই স্বাস্থ্যসেবা কভারেজ। যার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকারের অনুদানের অনুপাত ৬০:৪০।

প্রত্যেকটি পরিবার তালিকাভুক্ত করা হয় SECC ডেটাবেস থেকে:

SECC ডেটাবেস বা সোসিও-ইকোনমিক কাস্ট সেনসাস ২০১১ থেকে সুবিধাভোগী প্রত্যেকটি পরিবারকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে এই স্কিম এর আওতায়। মোট দশ কোটি সুবিধাভোগী পরিবারের মধ্যে গ্রাম অঞ্চল থেকে তালিকাভুক্ত হয়েছে প্রায় ৮ কোটি পরিবার এবং ২ কোটি পরিবার তালিকাভুক্ত হয়েছে শহর অঞ্চল থেকে।

মেয়ে, শিশু, নারী এবং প্রবীণ নাগরিকদের অগ্রাধিকার:

পরিবারের আকার এবং বয়সের উপর কোন সীমাবদ্ধতা নেই, কারণ এই স্বাস্থ্য বীমা কভার সমস্ত নাগরিকদের জন্য অন্তর্ভুক্ত। এই প্রকল্পে মহিলা, শিশুদের বিশেষ করে মেয়ে এবং ৬০ ঊর্ধ্ব প্রবীণদের জন্যেই বিশেষ ভাবে জোর দেওয়া হয়।

এটিতে সেকেন্ডারি এবং টেরিটরি কেয়ার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে:

এই স্কিমটি যাদেরকে কার্ডিওলজিস্ট এবং ইউরোলজিস্টের মতো বিশেষজ্ঞদের দ্বারা প্রদত্ত সেকেন্ডারি স্বাস্থ্যসেবা সুবিধাগুলি পাওয়ার প্রয়োজন রয়েছে তাদের প্রদান করে। তদুপরি, ক্যান্সার, কার্ডিয়াক সার্জারি এবং অন্যান্যর জন্য অগ্রিম চিকিৎসা কভারও করা হয় এই যোজনার মাধ্যমে।

সমস্ত সরকারী হাসপাতালে বাধ্যতামূলক চিকিৎসা:

আয়ুষ্মান ভারত যোজনা প্রাক-বিদ্যমান লাইসেন্স কভার করে এবং সমস্ত সরকারী হাসপাতালে বাধ্যতামূলক চিকিৎসার সুবিধা প্রদান করে। অন্যান্য বীমা কভারের বিপরীতে এই বীমা কভারে বলা হয়েছে যাদের চিকিৎসা এবং যত্নের প্রয়োজন তাদের কখনোই ফিরিয়ে দেওয়া যাবে না।

নগদবিহীন এবং কাগজবিহীন নিবন্ধীকরণ:

এই যোজনার সাহায্যে চিকিৎসা ক্ষেত্রে অতিরিক্ত অর্থের বোঝা টানতে হবে না সুবিধাভোগীদের। আয়ুষ্মান ভারত যোজনা সমস্ত চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় অর্থ নগদবিহীন এবং কাগজবিহীন নিবন্ধীকরণ-এর সুবিধা প্রদান করে। সুবিধাভোগীরা এই সুবিধা নিতে পারবেন ভারতের যেকোনো জায়গা থেকে।

মাত্রাতিরিক্ত ব্যয়ের উল্লেখযোগ্য হ্রাস:

আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সুবিধা হল সমস্ত সরকারী এবং তালিকাভুক্ত বেসরকারী হাসপাতালগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে কোনও দুর্নীতি বা পরিষেবাগুলিতে বিলম্ব কমাতে সমস্ত আয়ুষ্মান ভারত যোজনা সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে চিকিৎসা ক্ষেত্রে যত্নের জন্য কোনও অতিরিক্ত অর্থ চার্জ না করার জন্য।

বেসরকারী খাতের অংশগ্রহণ-এর মাধ্যমে জনস্বাস্থ্য লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করা:

যেহেতু এই যোজনা সারা ভারতজুড়ে ৫০ কোটি জনসংখ্যাকে কভার করে, তাই এটি বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের থেকে পরিষেবা ক্রয় করে ভারত সরকার। যার সাহায্যে এই প্রকল্পটি আরও সাশ্রয়ী মূল্যের স্বাস্থ্যসেবা, সরঞ্জাম এবং ওষুধ উত্পাদনকে উত্সাহিত করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জনসংখ্যার জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন:

এই যোজনা সমাজের দুর্বল অংশগুলির জীবনযাত্রার মান উন্নত করবে, যাতে তারা তাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যাগুলির মোকাবেলা করার জন্য সময়মত যত্ন এবং পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থ পায় ভারত সরকারের তরফ থেকে।

স্বাস্থ্য বীমা নেটওয়ার্ক বিস্তৃত করা:

আয়ুষ্মান ভারত যোজনা সারাদেশে গ্রামীণ এবং নিম্ন পরিষেবার অঞ্চলগুলিতে আরও ভাল পরিকাঠামো উন্নয়নের দিকে পরিচালিত করবে এবং আরও বেশি সংখ্যক ভারতীয়কে স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার সুযোগ দেবে। সরকার ১,৩৫০টি মেডিকেল প্যাকেজ তৈরি করেছে যা ডে-কেয়ার ট্রিটমেন্ট, হাসপাতালে ভর্তির খরচ, ওষুধের খরচ, চিকিৎসা খরচ এবং ওষুধ প্রদান করবে আয়ুষ্মান ভারত যোজনার স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্পের আওতায়। আয়ুষ্মান ভারত যোজনার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আপনার বিশদে যাচাই করতে পারেন।

Leave a Reply